ভারতের বিপক্ষেও আলোচনায় ‘বাংলাদেশ ব্র্যান্ড’ ক্রিকেট

0
46
বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

ঘরে-বাইরে অস্বস্তি। মাঠের ক্রিকেট বিবর্ণ। বাংলাদেশের ক্রিকেটে হানা দিচ্ছিল ঘোর অন্ধকার, তখনি সব হতাশার কালো মেঘ দূরে সরিয়েছে টাইগাররা। শ্রীলঙ্কাকে রেকর্ড রান তাড়া করে হারিয়েছে দাপটের সঙ্গে। ম্যাচ শেষে সেদিন তামিম ইকবাল জানিয়েছিলেন ওটাই বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের ক্রিকেট। নিদহাস ট্রফিতে যা এখন তৈরি করেছে আলোচনা।

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট নিদহাস ট্রফিতে বুধবার সন্ধ্যায় নিজেদের তিন নম্বর ম্যাচে নামবে বাংলাদেশ। ভারতের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট শুরুর পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অমন জয়। ফের ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ। এবার অনেকটা ফুরফুরে মেজাজে থাকা মাহমুদউল্লাহর দল চাইছে এই ম্যাচেও বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের ক্রিকেট খেলতে।

এই ব্র্যান্ডটা কি সেটা ব্যাখ্যা করলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক, ‘আমরা সফর শুরুর আগে ঠিক করেছিলাম যে বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের টি-টোয়েন্টি খেলব আমরা। আমাদের স্মার্ট হতে হবে। স্কিল আমাদের আছে। স্মার্ট হতে হবে ঝুঁকি নেওয়ার ক্ষেত্রে।

হয়ত কোনো সময় কোনো একজন বোলারকে আমরা টার্গেট করতে পারি। সেটা একজন ব্যাটসম্যান আরেকজনকে বলতে পারে বা এরকম আরও কিছু খেয়াল করলে সেটা বলা। ’

‘এই ব্যাপারগুলোর প্রয়োগই আমরা চাই। যখন যা প্রয়োজন, সেটি করতে পারাকেই আমরা বলছি বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের টি-টোয়েন্টি। আমাদের পাওয়ার হিটার নেই। এটা মেনে নিয়ে আমারে পথ চলতে হবে হবে এবং জিততে হবে। সেটির উপায়ই হলো স্মার্ট ক্রিকেট খেলা। নিজেদের স্কিলগুলোর প্রয়োগ করতে হবে।’

টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠার দৌঁড়ে এক ধাপ এগিয়ে ভারত। তিন ম্যাচের মধ্যে দুটিতে জিতে টেবিলে সবার উপরে তারা। ঠিক বিপরীত অবস্থা স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার। ভারতকে উড়িয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর পর বাকি দুই ম্যাচেই ধরাশায়ী।

বাংলাদেশ ভারতকে হারিয়ে দিলে আরও জমে উঠবে ফাইনালে উঠার লড়াই। আর এই ম্যাচে হেরে গেলেও বাংলাদেশের কাছে থাকতে সহজ সমীরকন। ১৬ মার্চ বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ তখন পরিণত হবে অলিখিত সেমিফাইনালে।