জামানত হারালেন ইমরান এইচ সরকার

0
147

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে কুড়িগ্রাম-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার।

নির্বাচনে তিনি মোটরগাড়ি প্রতীকে ২ হাজার ৭৭৫ ভোট পান। ফলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

কুড়িগ্রামের ৪টি আসনে মোট প্রার্থী ছিলেন ৪০। তাদের মধ্যে জামানত বাতিল হয়েছে ৩২ জনের। সবচেয়ে বেশি ১৬ জন প্রার্থী অংশ নেন কুড়িগ্রাম-৪ আসনে।

কুড়িগ্রাম-৪ আসনে মোট ভোট পড়েছে ২ লাখ ৩৮ হাজার ৫০৪টি। বাতিল হয়েছে ২ হাজার ১০৫টি ভোট। এই আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আশরাফ-উদ-দৌলা আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে ভোটের আগের দিন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেও তিনি ৩৩৩ ভোট পেয়েছেন।

আওয়ামী লীগের জাকির হোসেন ১ লাখ ৬২ হাজার ৬৩৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। বিএনপির প্রার্থী আজিজুর রহমান ৫৫ হাজার ৯৬০ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।

অন্যান্যদের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক এমপি গোলাম হাবিব ৭ হাজার ৩১৮ ভোট, গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার ২ হাজার ৭৭৫ ভোট, এসএম জাহাঙ্গীর আলম ৪২৯ ভোট, আবিদ আলভী জ্যাপ ৩০২ ভোট, আবুল হাশেম ৪১ ভোট, ইউনুছ আলী ৯৩ ভোট, ইমান আলী ৫১৩ ভোট, ইসলামী আন্দোলনের আনছার উদ্দিন ৩ হাজার ৫৪১, বাসদের আবুল বাশার মঞ্জু ৫২৭ ভোট, গণতন্ত্রী পার্টির মো. আব্দুস সালাম কালাম ১০৯ ভোট, ওয়াকার্স পার্টির মহিউদ্দিন আহম্মেদ ৫০৬ ভোট, গণফোরামের মাহফুজার রহমান ২৫ ভোট, জাকের পার্টির শাহ আলম ১ হাজার ২৯৩ ভোট পেয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম জানান, প্রদত্ত ভোটের ৮ ভাগের একভাগ না পেলে সেই প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।