ফ্রিজের খরচে চালান এসি, সারা রাত ঘুমোন নিশ্চিন্তে!

0
235

যত দিন যাচ্ছে, তত বাড়ছে গরম। তার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ঘাম আর অস্বস্তি। সারা দিনের ব্যস্ততার পর রাতে নিশ্চিন্তে ঘুমানোর পর্যন্ত উপায় নেই! গরম বালিশ, বিছানায় ক্লান্ত শরীর এলিয়ে দিয়েও স্বস্তি মেনে না। ফলে ঘুমোতে যাওয়ার পরও এপাশ ওপাশ করতে করতেই রাত কাবার হয়ে যায়। তবে যাঁদের বাড়িতে এসি রয়েছে, তাঁদের এ সব চিন্তা নেই। তাঁরা আবার চিন্তা করেন বিদ্যুতের বিল নিয়ে। কারণ, যত এসি চলবে, ততই চড়চড় করে বাড়বে বিদ্যুতের বিল! তবে এসি চালাতে বিদ্যুতের বিল নিয়ে আর ভাবতে হবে না। কারণ, একটা ফ্রিজ চালাতে যতটা বিদ্যুৎ খরচ হয়, তাতেই এ বার সারা রাত নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারবেন।

ভারতেই তৈরি হয়েছে এমন এক ধরনের এসি যা চালাতে প্রতি ঘণ্টায় মাত্র ৪০০ ওয়াট বিদ্যুৎ খরচ হবে। মধ্যবিত্তের কথা মাথায় রেখে এই এসি তৈরি করেছেন রবি পটেল নামে এক যুবক। রবি পটেলের এসি তৈরির সংস্থার নাম Tupik। Tupik-এর এই এসি উচ্চতায় ৮ ইঞ্চি, দৈর্ঘ্যে ১১ ইঞ্চি আর প্রস্থে ১৮ ইঞ্চি। এটির ওজন মাত্র ১৩ কিলোগ্রাম। রবি পটেলের দাবি, পাওয়ার কাট হলেও ইনভার্টারের সাহায্যে অনায়াসেই চালানো যাবে এই এসি।

Bed AC

রবি পটেলের তৈরি এই এসি দেখতে অনেকটা তাঁবু বা মশারির মতো। এটি এমন কৌশলে তৈরি করা হয়েছে যাতে গোটা ঘর নয়, শুধুমাত্র বিছানাটুকু চটপট ঠাণ্ডা হয়ে যাবে। এই এসি দেওয়াল না কাটিয়ে বা জানলার জায়গা দখল না করে ঘরের যে কোনও কোনায় বিছানার পাশে বসিয়ে নেওয়া যাবে। প্রয়োজন মতো এ ঘর থেকে ও ঘরে নিয়েও যাওয়া যাবে অনায়াসে। তাই এই এসি ইনস্টল করার জন্য কোনও টেকনিশিয়ান ডাকার প্রয়োজন নেই। কিনে আনুন আর পছন্দসই ঘরে নিজেই লাগিয়ে নিন এসি।

২০১৭ সালে বাণিজ্যিকভাবে লঞ্চ করে রবি পটেলের তৈরি এই এসি। বর্তমানে ভারতের প্রায় ১,৪০০ পরিবার এই এসি ব্যবহার করছেন। ১.৫ টনের একটি এসির দাম মোটামুটি ২৮ থেকে ৩০ হাজার টাকা। তবে Tupik-এর এই ‘পোর্টেবল’ এসির দাম ১৭ থেকে ১৯ হাজার টাকা।

সূত্র : জী নিউজ